শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:২৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাংলাদেশ রাইটার্স ক্লাব -এর উদ্যোগে সাহিত্য আলোচনা ও ইফতার অপচয়রোধে নিজের পোস্টার নিজেই লাগাচ্ছেন এমপি প্রার্থী রনি বাংলাদেশ রাইটার্স ক্লাব নারায়ণগঞ্জ -এর সাহিত্য আড্ডা অনুষ্ঠিত নাঃগঞ্জে সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি সানি’র নেতৃত্বে মিছিল ও প্রতিবাদ সাজাপ্রাপ্ত আসামী ব্লাকমেইলার কামাল ডান্ডাবেরী অবস্থায় জেলহাজতে সরকারকে দায়ী করে গুজব ছড়ানো হচ্ছে : লিপি ওসমান নারায়ণগঞ্জ সদরে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত বাংলাদেশে অগ্নিদানবদের ঠাঁই নেই: শাহজাহান খান নারায়ণগঞ্জে জেলা পর্যায়ে সেইপ’র অবহিতকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত মানব কল্যাণ পরিষদে বিনামূল্যে বিউটিফিকেশন কোর্সের উদ্বোধন

অনলাইন কেনাকাটায় মজুদ ছাড়া পণ্যের অগ্রিম অর্ডার নেয়া যাবে না

বিডি নিউজ আই: পণ্যের মজুদ ছাড়া কোন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান পণ্য বিক্রির অগ্রীম অর্ডার নিতে পারবে না। এছাড়া ক্রেতা ও বিক্রয়কারি প্রতিষ্ঠান একই শহরের হলে অর্ডার নেয়া পণ্য পরবর্তী ৫দিন এবং ভিন্ন শহর হলে পরবর্তী ১০ দিনের মধ্যে ডেলিভারি নিশ্চিত করতে হবে।
এসব নির্দেশিকা সংযুক্ত করে ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। বুধবার ডিজিটাল বাণিজ্য পরিচালনা সংক্রান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এটি চূড়ান্ত করা হয়।
বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ সভায় সভাপতিত্ব করেন। সভায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, আইন মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়,বাংলাদেশ ব্যাংক,ই-ক্যাবসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকশেষে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডব্লিউটিও সেলের মহাপরিচালক মো. হাফিজুর রহমান বাসসকে বলেন,‘অনলাইন কেনাকাটায় স্বচ্ছতা নিশ্চিত ও গ্রাহক প্রতারণা এড়াতে প্রয়োজনীয় নির্দেশিকা নীতিমালায় রাখা হচ্ছে। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানকে পণ্যের মজুদ আগে ঘোষণা করতে হবে এবং মজুদ থাকা সাপেক্ষে কেবলমাত্র পণ্য বিক্রির অগ্রীম অর্ডার নেয়া যাবে।’
তিনি জানান, কোন পণ্যের অর্ডার নিলে গ্রাহক একই শহরের হলে ৫ দিন এবং ভিন্ন শহরের হলে পরবর্তী ১০ দিনের মধ্যে ডেলিভারি নিশ্চিত করার বিধান রাখা হয়েছে। পণ্য ডেলিভারির আগে বিক্রয়কারি টাকা পাবেন না, বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে মূল পরিশোধ করতে হবে।
হাফিজুর রহমান আরও জানান, ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ভেটিংয়ের জন্য আগামীকাল আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।
তিনি বলেন,‘অনলাইন পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে কোন বিক্রয়কারি প্রতিষ্ঠানের লটারি করার সুযোগ থাকবে না। সব ধরনের ডিজিটাল ওয়ালেট, গিফট কার্ড, ক্যাশ ভাউচার বা অন্য কোনো মাধ্যম, যা অর্থের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হবে, সেই সব ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমতি নিয়ে করতে হবে।’
ই-কমার্স নীতিমালা ২০২১ এ ডিজিটাল কমার্সের মাধ্যমে মাল্টি লেভেল মার্কেটিং বা নেটওয়ার্ক ব্যবসা পরিচালনা করা যাবে না। ডিজিটাল মাধ্যমে নেশাসামগ্রী, বিস্ফোরক দ্রব্য বা অন্য কোনো নিষিদ্ধ সামগ্রী ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে না। ডিজিটাল মাধ্যমে ওষুধ ক্রয়-বিক্রয়ের ক্ষেত্রে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের লাইসেন্স গ্রহণ করতে হবে।
এছাড়া বিক্রয়কারি আগেভাগে টাকা পাবেন না। অর্ডার করা পণ্য গ্রাহক হাতে পাওয়ার পরই কেবলমাত্র বিক্রয়কারির একাউন্টে টাকা জমা হবে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের গেটওয়ে সিস্টেম ব্যবহার করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...


© All rights reserved © 2020 bdnewseye.com
Developed BY M HOST BD