শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৮:০০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বি ডাব্লিউ সি এন -এর সাহিত্য আড্ডায় দীপক ভৌমিকের কাব্যগ্রন্থের পাঠ উন্মোচন জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে অবহিতকরণ সভা না.গঞ্জে ট্রাফিক বিভাগের প্রশিক্ষণ কর্মশালা নবনির্বাচিত ফতুল্লা ইউনিয়ণ পরিষদের বাজেট ঘোষনা না’গঞ্জ প্রথম বিভাগ ক্রিকেটে ফাহিম’র দূদার্ন্ত সেঞ্চুরী কবি ও সাংবাদিক ইয়াদী মাহমুদের  দোয়া ও সহযোগিতার আহ্বান  ফতুল্লায় জলাবদ্ধতা ও পানি নিষ্কাশনের লক্ষে মতবিনিময় সভা প্রয়াত সাংবাদিকদের রুহের মাগফেরাত ও অসুস্থদের সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত না.গঞ্জ সদর উপজেলার ৫ প্রতিবন্ধী পরিবারে সেলাই মেশিন ও ব্যবসা সামগ্রী বিতরণ পবিত্র ওমরাহ্ পালনে সৌদির উদ্দেশ্যে সাংবাদিক এম সামাদ মতিন

বন্দরে ভয়ংকর কিশোর গ্যাং লিডার সিকে ফাহিম বেপরোয়া

বিডি নিউজ আই, নিজস্ব সংবাদদাতা  : নারায়ণগঞ্জের বন্দর কদম রসূল কলেজ প্রাঙ্গণে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হলেও অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের এখনো ধরতে পারেনি পুলিশ। এ বিষয়ে হামলার ঘটনায় গুরুতর আহতদের পরিবারের সদস্যরা এবং স্থানীয় জনমত নির্মম এই সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে প্রশাসনের ভূমিকা প্রশ্নবিদ।
মামলা সূত্রমতে জানাযায়, গত বৃহস্পতিবার ১৭ই ফেব্রুয়ারি বেলা সাড়ে ১১টায় বন্দর থানাধীন নাসিক ২৩ নং ওয়ার্ডস্থ সরকারি কদম রসূল কলেজ গেইটের সামনে সন্ত্রাসী হামলাসহ  সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
অনুসন্ধানে জানাযায়, বন্দর থানার নবীগঞ্জ এলাকার রমজান মিয়ার ছেলে আকাশ গত ১৭ ফেব্রুয়ারী সকালে কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষ বন্দর রাজবাড়ী এলাকার কুখ্যাত কিশোর গ্যাং লিডার সি.কে. ফাহিমের নেতৃত্বে নবীগঞ্জ বড়বাড়ী এলাকায় শাহীন মিয়ার ছেলে শামস একই এলাকার ইয়াছিন, অরবীসহ ১৫/১৬জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ আকাশের পথরোধ করে এলাপাথারী ভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। ওই সময় আকাশের বন্ধু লতিফ, অমির, শিশির, রাহুল ও ফয়সাল  হামলাকারিদের বাধা দিলে ওই সময় হামলাকারিরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদেরকে পিটিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়।  এ ঘটনায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দু’ গ্রুপের সংঘের্ষর ঘটনায় ৫ জন রক্তাক্ত জখম হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতরা হলো – আকাশ(১৯), লতিফ (২০), রাহুল (১৯) ও ফয়সাল (১৯)। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে বন্দর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে আহতদের নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানে আহত অমিয় এর অবস্থা অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। তাছাড়া আহতদের বেশি ভাগের অবস্থা আশঙ্কা জনক।
সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে বন্দর ফাঁড়ী উপ-পরিদর্শক (এসআই) রওশন ফেরদৌস সঙ্গীর ফোর্সসহ  নবীগঞ্জ কবিলের মোড় এলাকায় তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে শামস (১৯) নামের একজন কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসীকে আটক করে। পুলিশ আটককৃত সন্ত্রাসী শামসকে পরদিন শুক্রবার সকালে আদালতে প্রেরণ করে।  আটককৃত যুবক শামস বন্দর থানার নবীগঞ্জ বড়বাড়ী এলাকার শাহীন মিয়ার ছেলে বলে জানা গেছে।
এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় আহত আকাশের পিতা রমজান মিয়া বাদী হয়ে ভয়ংকর সন্ত্রাসী কিশোর গ্যাং লিডার সি.কে. ফাহিম, ইয়াসিন শামসসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ্য করে এবং  ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত নামা আসামী করে বন্দর থানার একটি মামলা নং -২৭(২)২২ ধারা-১৪৩/৩৪১/৩০৭/৩২৩/৩২৬/৫০৬ পেনাল কোড-১৮৬০ দায়ের করে।
মামলা প্রসঙ্গে বন্দর থানার এসআই ফেরদৌস মুঠোফোনে গণমাধ্যমকে জানান, আমরা উপরোক্ত মামলার বিষয়ে তদন্ত অব্যাহত রেখেছি। একজন আসামী গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে। পুলিশ অপরাধীকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে বিচারের সম্মুখ করতে সর্বদা কাজ করছে। আশাকরি অচিরেই ঘটনার সাথে জড়িত সকল অপরাধীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হবো।
নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...


© All rights reserved © 2020 bdnewseye.com
Developed BY M HOST BD