সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৯:১৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
অপচয়রোধে নিজের পোস্টার নিজেই লাগাচ্ছেন এমপি প্রার্থী রনি বাংলাদেশ রাইটার্স ক্লাব নারায়ণগঞ্জ -এর সাহিত্য আড্ডা অনুষ্ঠিত নাঃগঞ্জে সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি সানি’র নেতৃত্বে মিছিল ও প্রতিবাদ সাজাপ্রাপ্ত আসামী ব্লাকমেইলার কামাল ডান্ডাবেরী অবস্থায় জেলহাজতে সরকারকে দায়ী করে গুজব ছড়ানো হচ্ছে : লিপি ওসমান নারায়ণগঞ্জ সদরে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত বাংলাদেশে অগ্নিদানবদের ঠাঁই নেই: শাহজাহান খান নারায়ণগঞ্জে জেলা পর্যায়ে সেইপ’র অবহিতকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত মানব কল্যাণ পরিষদে বিনামূল্যে বিউটিফিকেশন কোর্সের উদ্বোধন না:গঞ্জে জরায়ুমুখ ক্যান্সার প্রতিরোধের টিকাদান ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন

টোল বিহীন মালামাল পারাপারে এম.পি সেলিম ওসমানকে বন্দর বাসীর সাধুবাদ

বন্দর প্রতিনিধিঃ সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, বন্দর সেন্ট্রাল ট্রলার খেয়াঘাট সংলগ্ন দুটি নৌকা পারাপারের ঘাট রয়েছে। সেখানে মানুষ পারাপারে টোল না থাকলেও মালামাল পারাপারে টোল দিতে হয়। আর এই টোল দেওয়াকে কেন্দ্র করে অনেক সময় বিভিন্ন ঝামেলার সৃষ্টি হয়। এতে সাধারন মানুষ বিভিন্ন সময় নানান অভিযোগ করে আসছিলো। এই বিষয়ে খোজ নিয়ে জানা যায়, বি আই ডব্লিউ কতৃক ইজারা নিয়ে টোল আদায় করা হয়। কিন্তু ইজারায় ১-৩ ঘাটের ইজারা থাকলেও ট্রলার খেয়াঘাট সংলগ্ন নৌকার খেয়াঘাটটি মুলতঃ ট্রলার খেয়াঘাট ইজারাদারদের সীমানায়। যেখানে কোন টোল আদায় করার কোন কথা নয়। বিশ্বস্ত সুত্রে জানা যায়, বিগত সময়ে সকল ইজারাদারগন সেন্ট্রাল ট্রলার খেয়াঘাট ইজারাদারকে প্রতিদিন আর্থিক সুবিধা  দিয়ে মেনেজ করে এই টোল আদায় করে আসছে। এই বিষয় নিয়ে ভারপ্রাপ্ত ইজারাদার এইচ এম রাসেলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান আমরা আগে তিন ঘাট থেকে টোল আদায় করলেও এখন শুধু বটতলা ও লঞ্চ ঘাট থেকে টোল আদায় করে থাকি। ট্রলার খেয়াঘাট সংলগ্ন খেয়াঘাট থেকে কোন টোল আদায় করি না। আগে টোল আদায় করলেও এখন কেন করছেননা প্রশ্ন করলে তিনি উপড়ের নির্দেশ আছে বলে নিজের দায় এড়িয়ে যান। খেয়াঘাটে কর্মরত মাঝি ও লেবারের সাথে কথা বললে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাক্তি বলেন, মুলত বন্দর বটতলা খেয়াঘাট ও লঞ্চঘাট বি আই ডব্লিউ কতৃক মালামালের ইজারা কৃত ঘাট। কিন্ত সেন্ট্রাল ট্রলার খেয়াঘাট ইজারাদারকে আর্থিক সুবিধা দিয়ে তিনও ঘাট থেকে টোল আদায় করে আসছে। তবে তিন মাস যাবত দুটি ঘাটে টোল আদায় করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন শুনেছি আমাদের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ কে এম সেলিম ওসমান সাহেবের হস্তক্ষেপে এটি বন্ধ হয়েছে। এসময় এক ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ীর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, স্বাধীনের পর থেকে এই পর্যন্ত একমাত্র এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম সেলিম ওসমান সাহেবই টোল ফ্রি করেছেন। এই ঘাটে মালামালের টোল বন্ধ করায় আমরা খুব খুশি। এটা যেন অব্যাহত থাকে সেই অনুরুধ থাকবে এমপি মহোদয়ের কাছে। সংবাদ সংগ্রহ কালে সকলেই মাননীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম সেলিম ওসমান কে সাধুবাদ জানিয়েছে।  সকলের দাবী বন্দর সেন্ট্রাল ট্রলার খেয়াঘাট সংলগ্ন নৌকার খেয়াঘাটের মালামালের টোল যেন পুনরায় চালু না হয়। পাশাপাশি সবসময়ের জন্য মাননীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম সেলিম ওসমানের সুদৃষ্টি কামনা করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...


© All rights reserved © 2020 bdnewseye.com
Developed BY M HOST BD