বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন

কবি সুফিয়া সিরাজ -এর তিনটি কবিতা

কবি সুফিয়া সিরাজ

একটা বিকেল

হঠাৎ এক শরতে,
তোমার সামনে হাজির হবো
আমাকে দেখে চমকে যাবে তুমি ;
শরতের আকাশের মতো
শুভ্র সাদা শাড়ি আর নীল ব্লাউজ
কপালে নীল টিপ,
খোঁপায় কাঠগোলাপের মালা।
তোমার চোখের পলক পড়তেই চাইবে না
আমাকে দেখে তুমি বলবে
আস্ত একটা আকাশ।
আমার দিকে তাকিয়ে থাকা তোমার চোখের দৃষ্টি বুকের ভেতর তোলপাড়
সৃষ্টি করবে,
চাতক অপেক্ষায় থাকে বৃষ্টির
আর আমি তোমার।
একটা বিকেল তুমি আমার নামে লিখে দিবে শুধুই আমার নামে_
দুইজন একসাথে ঘুরবো
এক কাপে চা খাবো ভাগাভাগি করে
আঙুলে আঙুল ছুঁয়ে বসবো পাশাপাশি, কাঁধে রাখবো মাথা,
হঠাৎ চুমুতে তোমার সব ক্লান্তি মুছে দিবো,
মুছে দিবো হৃদয়ের যতো ক্ষত!
খুব অধিকার নিয়ে শার্টের কলার চেপে ধরে বলবো তুমি শুধুই আমার
ভালোবাসি বড্ড বেশি।
তোমাকে ভালোবেসে আমি জেনেছি
ভালোবাসার মতো সুখ,
আর কিছুই তে নেই
সকল কিছু ভুলে, সব ছেড়ে
আমরা শুধু আমাদের ভালোবাসবো।

★৫/৮/২০২১★

পূর্ণতা

তোমার মুখের এক চিমটি হাসি
আমার এক সমুদ্র সুখ,
বোঝ কি তুমি?

ওগো আমার স্বপ্নডানার পাখি!
মেলো ডানা তোমার সাথে
উড়তে আমি রাজি,

আকাশের নীলে এঁকে দেও
তোমার ভালোবাসার রঙ
এসো ভিজি সুখের বৃষ্টিতে।

মেলো আঁখি দেখো,
এনেছি তোমার প্রিয় কাঠগোলাপ,

হাতটা বাড়াও স্পর্শ করো
অনুভব করো বুঝবে
আমার ভালোবাসার পরশমাখা
ফুলের পাপড়ি জুড়ে।

বনে বনে রঙের আগুন
এসো প্রিয় উৎসবে মাতি
পাওয়ার পূর্ণতায়।

যখন দেখি তোমার হাসিমুখ,
তখন বুঝি,
আমিও ভীষণ বাঁচতে ভালোবাসি।

★২৮/৫/২০২২★

আরাধনা

জানোতো,
সময় কারো জন্য অপেক্ষা করে না,
একটা সময় ছিল যখন তোমাকে পাগলের মতো ভালোবাসতাম!
তখন তোমার কাছে সেগুলো ছিল পাগলামি!
আবেগ, অনুভূতি গুলো তোমার কাছে ছিল নিছক ছেলে মানুষী।
স্পষ্ট মনে আছে
তুমি বুঝিয়ে দিয়েছিলে,
আমাকে ভালোবেসে তুমি বড্ড ক্লান্ত ;
তোমার গলায় সেদিন বিরক্তির সুর শুনেছি,
তুমি বুঝিয়ে দিয়েছিলে
ভালোবাসা হলো সস্তা আবেগ!
আভিমান গুলো অযৌক্তিক অভিযোগ!
তোমার না থাকা ঐ সামান্য সময়টুকুতে
আমি ছিলাম বিশাল আকাশে
চাঁদের মতোই একা।
শূন্যতায় ডুবে ছিলাম মেঘের আড়ালে
সে খবর তুমি রাখনি!
আমার ক্ষত-বিক্ষত হৃদয়ের আর্তচিৎকার
তুমি কিন্তু শুননি!
শুনেছিল রাত জাগা ঐ তারাগুলো।
সেদিনের না পাওয়ার আক্ষেপ!
অবহেলার পাহাড় জমতে জমতে
কখন যে মনের দরজার খিল দিয়েছি
তুমি টেরই পাওনি।
জানোতো!
অবহেলায় দূরত্ব বাড়ে!
সহজ স্বাভাবিক সন্মানটুকু যখন কেউ পায়না তখন মানুষ বেছে নেয় দূরত্ব কে,
তবে এখন আর তোমার জন্য
না আছে আক্ষেপ
না আছে অপেক্ষা!
একটা সম্পর্ক চেয়েছিলাম
সুখ দুঃখ গুলো ভাগাভাগি করে
দুটি সুখী মানুষ হয়ে,
লোকচক্ষুর সামনে দাপটে দাপিয়ে বেড়াতে, হতে চেয়েছিলাম
সুখী পরিবারের উদাহরণ!
হলো তার উল্টো ;
এখন তোমাকে ছাড়া ভালো থাকতে
শিখে গিয়েছি প্রিয়,
আবেগ গুলোকে আর সস্তা হতে দেই না
আবেগী হয়েই ভালো আছি আমি।
একদিন সব প্রতিকূলতার পাশ কাটিয়ে
যার কাছে ছুটে এসেছিলাম এক বুক ভালোবাসা নিয়ে,
আজ বিস্ময়ভরা চোখে তাকিয়ে দেখি
ভীষণ অসহায় মনে হয় তোমাকে;
বুঝনি ভালোবাসার যত্ন নিতে হয়
আগলে রাখতে হয় গভীর মায়ায়।

★১৬/২/২০২২★

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...


© All rights reserved © 2020 bdnewseye.com
Developed BY M HOST BD